সিএএ, এন আর সি, এনপিআর নিয়ে বিজেপি তৃণমূলের কোনও বিরোধ নেই, অভিযোগ সিপিআইএমের | The Background

Saturday, October 16, 2021

Contact Us

Google Play

Breaking News

সিএএ, এন আর সি, এনপিআর নিয়ে বিজেপি তৃণমূলের কোনও বিরোধ নেই, অভিযোগ সিপিআইএমের

The Background, কলকাতাঃ

 কলকাতার শহীদ মিনার ময়দানে এক সমাবেশে সিপিআই(এম) রাজ্য সম্পাদক সূর্য মিশ্র পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়কে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে বলেছেন, সাহস থাকলে সিএএ-র বিরুদ্ধে বিধানসভায় প্রস্তাব পাস করে দেখান। এজন্য কেরালাকে অনুসরণ বা অনুকরণ করতে হবে না। মুখ্যমন্ত্রী যদি বিধানসভায় প্রস্তাব পাশ করেন তাহলে “আমি তাঁকে ধন্যবাদ দেব”। এই রাজ্যে যদি সিএএ-র বিরুদ্ধে প্রস্তাব পাশ হয় তা হবে সাধারণ মানুষের সম্মিলিত লড়াইয়ের জন্যই। চাইলেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়  সুপ্রিম কোর্টে যেতে পারেন সিএএ আইনের বিরুদ্ধে। রাজ্যের সে ক্ষমতা আছে বলে তিনি মন্তব্য করেন। ২৩ জানুয়ারি সারা দেশে সিএএ-র বিরুদ্ধে শপথ নেবে বামপন্থীরা। এই রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপির বিরুদ্ধেও শপথ নেওয়া হবে। এনপিআর করতে যে সরকারি আধিকারিক আসবে তাঁকে উত্তর দেবেননা। বলবেন জবাব হাম নেহি দেঙ্গে।

কলকাতা জেলা সিপিআইএমের ডাকা এই সমাবেশে পলিটব্যুরোর সদস্য মহম্মদ সেলিম মুখ্যমন্ত্রীর ভণ্ডামির কড়া সমালোচনা করে বলেন, একদিকে মানুষকে বলবেন লড়াই করছি অপরদিকে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে রাজভবনে গিয়ে চুপি চুপি বৈঠক করবেন। লড়াই সবাইকে নিয়ে করলে একসঙ্গে নিয়ে যেতে পারতেন বৈঠকে। তিনি অতীতকে স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, এই রাজ্যে যখন জ্যোতি বসু, বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যরা মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন তখন বিজেপির কোনো নেতার সাহস হয়নি বিভাজনের রাজনীতি করার।কিন্তু নবান্নর ১৪তলা যদি চোরেদের আখড়া হয় তখন দিলীপ ঘোষেদের মতো নেতা তৈরি হয় বলে মন্তব্য করেন সেলিম। তিনি বলেন, মুখ্যমন্ত্রী মুখে বলেন সিএএ করব না অথচ কাগজে কলমে কিছু করতে চাননা। দেশজুড়ে ছাত্রছাত্রীরা সিএএ-র বিরুদ্ধে আন্দোলনে নেমেছে। সমস্ত স্তরের মানুষ এককাট্টা হচ্ছেন। শাসক ভয় পেয়েছে। এইরকম এককাট্টা হয়েই বলতে কাগজ হাম নেহি দিখায়েঙ্গে।

Facebook Comments